ExamBD

অষ্টম শ্রেণির ICT - ৩য় অধ্যায়

অধ্যায়-৩ 

প্রশ্ন : দুর্নীতি নিরসনে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার লেখ।
‎উত্তর : দুনীির্ত নিরসনে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার নিচে দেয়া হলো :
‎ ১. বতর্মান তথ্য সংরক্ষণ এবং প্রক্রিয়া করার জন্য পুরো পদ্ধতিকেই তথ্যপ্রযুক্তির আওতায় আনতে হয়েছে। তাই কোনো তথ্য ভুল হলে বা লেনদেনে অনিয়ম হলে তা সহজেই সবার সামনে প্রকাশ পেয়ে যাচ্ছে।
‎২. টেন্ডার প্রক্রিয়াটি আগে লিখিতভাবে হতো কিন্তু বতর্মানে ই-টেন্ডারিংয়ের মাধ্যমে এর আথির্ক লেনদেনে বা টেন্ডার চুরির ঘটনা কমে যাচ্ছে। বাংলাদেশে ই-টেন্ডার করার জন্য বিশেষ পোটার্ল তৈরি হয়েছে।
‎৩. ই-কমার্স প্রক্রিয়ায় ব্যবসা-বাণিজ্য হওয়ার কারণে ক্রেতা ও বিক্রেতার মধ্যে সরাসরি সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। যাতে করে মধ্যভোগী অসৎ লোকেরা কোনো সুযোগ গ্রহণ করতে পারছে না।
‎ ৪. পরীক্ষার ফলাফল দেখার ক্ষেত্রে ওএমআর পদ্ধতি ব্যবহার করায় দুনীির্তর কোনো সুযোগ থাকছে না।
‎৫. এখন ইন্টারনেটের কারণে, মিডিয়ার কারণে ক্ষমতাশীল মানুষের বিরুদ্ধে, তাদের অন্যায় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে, মানুষের মতামত প্রদানের এবং একত্র হওয়ার সুযোগ তৈরি হয়েছে। এতে কেউ চাইলেই দুনীির্ত করতে পারবে না।

প্রশ্ন : নেটওয়াকর্ নিরাপত্তাব্যবস্থায় পাসওয়াডের্র গোপনীয়তা রক্ষার পাঁচটি উপায় লেখ।
‎উত্তর : নেটওয়াকর্ নিরাপত্তাব্যবস্থায় পাসওয়াডের্র গোপনীয়তা রক্ষার পাঁচটি উপায় নিচে দেয়া হলো :
‎১. সংক্ষিপ্ত পাসওয়াডের্র পরিবতের্ দীঘর্ পাসওয়াডর্ ব্যবহার করা। প্রয়োজনে কোনো প্রিয় বাক্য ব্যবহার করা যেতে পারে। নিয়মিত পাসওয়াডর্ পরিবতের্নর অভ্যাস গড়ে তোলা।
‎ ২. বিভিন্ন ধরনের বণর্ ব্যবহার করা অথার্ৎ বড় এবং ছোট হাতের বণের্র সংমিশ্রণ ব্যবহার করা।
‎৩. জটিল পাসওয়াডর্ ব্যবহার করা অথার্ৎ শব্দ, বাক্য, সংখ্যা এবং প্রতীক সমন্বয়ে পাসওয়াডর্ তৈরি করা।
‎৪. বেশির ভাগ অনলাইন সাইটে পাসওয়াডের্র শক্তিমত্তা যাচাইয়ের সুযোগ থাকে। নিয়মিত সে সুযোগ কাজে লাগিয়ে পাসওয়াডের্র শক্তিমত্তা যাচাই করা এবং শক্তিমত্তা কম হলে তা বাড়িয়ে নেয়া। পাসওয়াডর্ ম্যানেজারও ব্যবহার করা যেতে পারে।
‎৫. অনেকেই ব্যবহার করেন যেমন, সাইবার ক্যাফে, ইউনিয়ন তথ্য বা সেবাকেন্দ্র, এমন সিস্টেম ব্যবহার করলে আসন ত্যাগের আগে সংশ্লিষ্ট সাইট থেকে লগ আউট করা।

প্রশ্ন : হ্যাকিং এবং হ্যাকারের মধ্যে পাথর্ক্য লেখ।
উত্তর : হ্যাকিং এবং হ্যাকারের মধ্যে পাথর্ক্য নিম্নরূপ :
হ্যাকিং
১. হ্যাকিং বলতে বোঝায় ব্যবহারকারীর বিনা অনুমতিতে তার কম্পিউটার সিস্টেম বা নেটওয়াকের্ প্রবেশ করা।
২. হ্যাকিং করার উদ্দেশ্য সৎ অথবা অসৎ দুই ধরনের হতে পারে।
৩. এটি একটি পদ্ধতি বা প্রক্রিয়া।

হ্যাকার
১. যারা হ্যাকিংয়ের কাজ করে, তাদের বলা হয় কম্পিউটার হ্যাকার বা হ্যাকার।
২. হ্যাকার তিন ধরনের হতে পারে। হোয়াইট হ্যাট হ্যাকার, বø্যাক হ্যাট হ্যাকার এবং গ্রে হ্যাট হ্যাকার।
৩. এটি বলতে কোনো ব্যক্তি বা গ্রুপ বোঝায়।

SUBSCRIBE TO OUR NEWSLETTER

Seorang Blogger pemula yang sedang belajar

0 Response to "অষ্টম শ্রেণির ICT - ৩য় অধ্যায় "

Post a comment

চাকরির প্রস্তুতি সহায়ক বই
চাকরির খবর
বিসিএস রিভিউ

View All

সাম্প্রতিক প্রশ্নোত্তর

View All