ExamBD

রাবিতে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরিক্ষার সুযোগ প্রদানের সুপারিশ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষায় দ্বিতীয়বার অংশগ্রহণের সুযোগ প্রদানের সুপারিশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি উপ-কমিটি।বৃহস্পতিবার ভর্তি উপ-কমিটির সভায় এ সুপারিশ করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন ভর্তি উপ-কমিটির সদস্য এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সেন্টারের প্রশাসক অধ্যাপক খাদেমুল ইসলাম মোল্যা।তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সভাপতিত্বে ভর্তি উপ-কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার অন্যতম এজেন্ডা ছিলো দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ প্রদানের সুপারিশ। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ বঞ্চিত মেধাবীদের নিয়ে আলোচনা হয়। সার্বিক দিক বিবেচনা করে এ বছর দ্বিতীয়বার ভর্তি সুযোগ প্রদানের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার জন্য অনলাইনে আবেদন পক্রিয়া আগামী ১০ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে জানিয়ে খাদেমুল ইসলাম মোল্যা জানান, আবেদন প্রক্রিয়া চলবে ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। আর ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২২ অক্টোবর থেকে ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত।তিনি আরও জানান, ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের আবেদন যোগ্যতায় কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। মানবিক শাখা থেকে উত্তীর্ণদের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩ দশমিক ৫০ সহ মোট জিপিএ ৭ দশমিক ৫০ পেতে হবে, যা আগে ছিল ৭। বাণিজ্য শাখা থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩ দশমিক ৫০ সহ মোট জিপিএ ৮ থাকতে হবে, যা আগে ছিল ৭ দশমিক ৫০। আর বিজ্ঞান শাখা থেকে উত্তীর্ণদের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩ দশমিক ৫০ সহ মোট জিপিএ ৮ দশমিক ৫০ পেতে হবে, যা আগে ছিল ৮।এছাড়া আইন বিভাগে ৪০টি আসন কমানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এমএ বারী বলেন, 'ভর্তি উপ-কমিটির সভায় বেশ কয়েকটি এজেন্ডা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কিছু সুপারিশও করা হয়েছে। কিন্তু এগুলো পূর্ণাঙ্গ সিদ্ধান্ত নয়। ভর্তি মূল কমিটি এবং একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় পাশ হলেই তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।'বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুস সোবহান বলেন, 'ভর্তি উপ-কমিটির সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ রাখার সুপারিশ করা হয়েছে। তবে তা ভর্তি পরীক্ষার মূল কমিটি চুড়ান্ত অনুমোদন দিলেই কেবল কার্যকর করা হবে।'উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ১৯ ডিসেম্বর একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষ থেকে রাবিতে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ বাতিল করা হয়।

SUBSCRIBE TO OUR NEWSLETTER

Seorang Blogger pemula yang sedang belajar

0 Response to "রাবিতে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরিক্ষার সুযোগ প্রদানের সুপারিশ "

Post a comment

চাকরির প্রস্তুতি সহায়ক বই
চাকরির খবর
বিসিএস রিভিউ

View All

সাম্প্রতিক প্রশ্নোত্তর

View All