ExamBD

বিসিএস রিভিউ: বাংলা ভাষা ২০তম থেকে ৩০তম বিসিএস PDF সহ


বিসিএস রিভিউ: বাংলা ভাষা ২০তম থেকে ৩০তম বিসিএস PDF সহ

২০ তম বিসিএস
→ ‘পদ’ বলতে বুঝায়- বিভক্তিযুক্ত শব্দ বা ধাতু
→ শুদ্ধ বানানটি- শুশ্রষা।
→ ঠোট কাটা বলতে কী বুঝায়- সুষ্টভাষী।
→ দ্বন্দ্ব সমাসের উদাহরণ- ভাই-বোেন
→ যা সহজে অতিক্রম করা যায় না’-এর সংক্ষিপ্ত রূপ - দূরতিক্রম্য।
→ ব্যাঙের সর্দি-এর অর্থ – অসম্ভব ঘটনা
→ ভুষঞ্জি কাক’ অর্থ- দীর্ঘায়ু ব্যক্তি
→ নিত্য মূর্ধণ্য-ষ কোন শব্দে বর্তমান- আষাঢ়।

২১তম বিসিএস
, চাঁদের হাট’ অর্থ – আত্মীয় সমাগম
— শুদ্ধ বানানটি -শুচিস্মিতা
→ কর্মে যাহার ক্লান্তি নাই' এই বাক্যাংশের সংক্ষিপ্ত রূপ - অক্লান্তকর্মী
→ অনুজ্ঞা - তুমি যাও
→ শুদ্ধ বানানটি- মুমূর্ষ।
→ যত বড় মুখ নয় তত বড় কথা’- এখানে মুখ বলতে বুঝাচ্ছে- শক্তি
→ ণত্ব বিধি সাধারণত যে শব্দে প্রযােজ্য- তৎসম
→ ক্রিয়াপদ- শুধু অতীতকাল বুঝাতে বাক্যে ব্যবহৃত হয়।
→ ‘বিরাগী’ শব্দের অর্থ – উদাসীন

২২তম বিসিএস
→ “অপলাপ” শব্দের অর্থ – অস্বীকার
→ ভিক্ষুকটা যে পিছনে লেগেই রয়েছে, কী বিপদ!'-এই বাক্যের কী -এর অর্থ-বিরক্তি
→ ‘ঢাকের কাঠি' বাগধারা অর্থ- তােষামুদে

২৩তম বিসিএস
→ নারীকে সম্বােধনের ক্ষেত্রে প্রযােজ্য হবে- শ্ৰদ্ধাস্পদাস।
→ পেয়ারা যে ভাষা থেকে আগত শব্দ- পর্তুগিজ।
→ সমার্থক শব্দগুচ্ছ সনাক্ত করুন- শৈবলিনী,
তরঙ্গিনী, সরিৎ।
→ শুদ্ধ বানানের শব্দগুচ্ছ- স্বায়ত্তশাসন, অভ্যন্তর, জন্মবার্ষিক।
→ প্রাতরাশ’-এর সন্ধি- প্রাতঃ+আশ।
→ যে পদে বাক্যের ক্রিয়াপদটির গুণ, প্রকৃতি,
তীব্রতা ইত্যাদি প্রকৃতিগত অবস্থা বুঝায়,
তাকে বলা হয়- ক্রিয়াবিশেষণ।
→ ‘হ্ম’-এর বিশিষ্ট রূপ- হ+ম।
রামগরুড়ের ছানা' কথাটির অর্থ- গােমড়ামুখাে লােক।
বিরামচিহ্ন যথাযথভাবে ব্যবহৃত হয়নি।
ঢাকা, ২১ ফেরুয়ারি ১৯৫২।
→ বামেতর' শব্দটির অর্থ- ডান
→ ‘নিরানব্বইয়ের ধাক্কা' বাগধারাটির অর্থ- সঞ্চয়ের প্রবৃত্তি।

 → যে সমাসের ব্যাসবাক্য হয় না, কিংবা তা
করতে গেলে অন্য পদের সাহায্য নিতে হয়,
তাকে বলা হয়- নিত্য সমাস

২৪তম বিসিএস (বাতিলকৃত)
→ সুন্দর মাত্রেরই একটা আকর্ষণ শক্তি আছে।'-এই বাক্যে সুন্দর শব্দটি যে পদ- বিশেষ্য।
→ কাঁচি' যে ভাষার শব্দ- তুর্কি।
→ অধিকরণ কারকে সপ্তমী বিভক্তির উদাহরণ
আছে যে বাক্যটিতে- আকাশে তাে আমি রাখি নাই মাের উড়িবার ইতিহাস।
→ ‘বেটাইম’ শব্দটি গঠিত হয়েছে- ফারসি ও
ইংরেজি শব্দে।
→ হাত-ভারি’ বাগধারার অথ- কৃপণ
→ লাজ’ যে ধরনের শব্দ- বিশেষ্য

২৪তম বিসিএস
→ জঙ্গম-এর বিপরীতার্থক শব্দ - স্থাবর
→ উৎকর্ষতা’ কী কারণে অশুদ্ধ- প্রত্যয়জনিত।
→ তুমি না বলেছিলে আগামীকাল আসবে? এখানে 'না’ এর ব্যবহার হবে যে অর্থে- তঁা-বাচক।
→ কার মাথায় হাত বুলিয়েছ-এখানে মাথা শব্দের অর্থ- ফাঁকি দেয়া- উপসর্গ থাকে সামনে প্রত্যয় থাকে পিছনে।
– তুমি এতক্ষণ কী করেছ?-এই বাক্যে কী যে
পদ- সর্বনাম।
↪‘আকাশে তাে আমি রাখি নাই মাের উড়িবার
ইতিহাস।'-এই বাক্যে ‘আকাশে’ কোন কারকে
কোন বিভক্তির উদাহরণ- অধিকরণে সপ্তমী।

২৫তম বিসিএস
→ ক্ষীয়মাণ’ এর বিপরীত শব্দ - বর্ধমান
→ নষ্ট হওয়ার স্বভাব যার এক কথায় হবে- নশ্বর।
→ যে সমাসের পূর্বপদ সংখ্যাবাচক এবং সমস্ত পদের দ্বারা সমাহার বুঝায় তাকে বলে- দ্বিগু সমাস।
→ শুদ্ধ বাক্য-তাহার জীবন সংশয়পূর্ণ।
↪'চাঁদমুখ’ এর ব্যাসবাক্য হলাে - চাঁদের মত মুখ।
↪'সর্বাঙ্গে ব্যথা, ঔষধ দিব কোথা’- এই বাক্যে
‘ঔষধ’ শব্দ- কর্ম কারকে শূন্য বিভক্তির উদাহরণ।
↪'যেহেতু তুমি বেশী নম্বর পেয়েছ, সুতরাং তুমি
প্রথম হবে’ যে ধরনের বাক্য- জটিল
→ বাংলা ছন্দ কত রকমের তিন রকমের
→ কোনটি শুদ্ধ বানান- দ্বন্দ্ব


২৬তম বিসিএস
→ ‘চৌ-হদ্দি’ শব্দটি যে ভাষার শব্দ মিলে
হয়েছে ফারসি + আরবি
→ যা কিছু হারায় গিন্নী বলেন, কেষ্টা বেটাই চোর’
-এখানে হারায় যে ধাতু- প্রযােজক ধাতু।
→ কোন্ শব্দটি ফারসি- পেরেশান দাপ্তরিক যে শব্দটি ইংরেজি ভাষা থেকে আগত এজেন্ট।
→ নবান্ন' শব্দটি যে প্রক্রিয়ায় গঠিত- সমাস, সন্ধি।
→ পক্ক অর্থে প্রকাশ পায়- পাকা আম।
↪‘যে-ই তার দর্শন পেলাম, সে-ই আমরা প্রস্থান
করলাম’ – এটি যে জাতীয় বাক্য- মিশ্র বাক্য।
→ লাঠালাঠি’ - ব্যতিহার বহুব্রীহি সমাস
→ প্র, পরা, অপ- সংস্কৃত উপসর্গ।

২৭তম বিসিএস
→ গ্রিক শব্দ - দাম
→ বাংলা ভাষায় খাটি উপসর্গ আছে- একুশ
→ রাজা রামমােহন রচিত বাংলা ব্যাকরণের নাম- গৌড়ীয় ব্যাকরণ।
→ মেছাে’ শব্দের প্রকৃতি-প্রত্যয়- মাছ + উয়া > ও।
→ নিপাতনে সিদ্ধ সন্ধি - পর + পর = পরস্পর।
↪প্রত্যক্ষ কোনাে বস্তুর সাথে পরােক্ষ কোনাে
বস্তুর তুলনা করলে প্রত্যক্ষ বস্তুটিকে বলা হয়- উপমেয়।
→ ‘এ মাটি সােনার বাড়া’-এ উদ্ধৃতিতে ‘সােনা যে অর্থে
ব্যবহার করা হয়েছে বিশেষণের অতিশায়ন।

২৮তম বিসিএস
→ “উপরােধ” শব্দের অর্থ- অনুরােধ।
→ যে গােষ্ঠী থেকে বাঙালি জাতির প্রধান অংশ গড়ে উঠেছে- অস্ট্রিক।
২৯তম বিসিএস
→ বাংলা বর্ণমালায় স্বরবর্ণ- ১১টি।
→ তৎসম শব্দের ব্যবহার যে রীতিতে বেশি
হয়- সাধু রীতি।
→ বাংলা ভাষায় প্রথম ব্যাকরণ রচনা করেন -
রাজা রামমােহন।
→ জনৈক’ শব্দটির সন্ধি বিচ্ছেদ- জন + এক।
→ বাক্যের তিনটি গুণ - আকাঙ্ক্ষা, আসত্তি ও যােগ্যতা।
→ সমাস ভাষাকে সংক্ষেপ করে।

৩০তম বিসিএস
→ অনীক’ শব্দের অর্থ- সৈনিক
→ জ্যোজরাত যে সমাসের দৃষ্টান্ত- মধ্যপদলােপী কর্মধারয়।
→ Anatomy শব্দের অর্থ- শরীরবিদ্যা।


Pdf Download

SUBSCRIBE TO OUR NEWSLETTER

Seorang Blogger pemula yang sedang belajar

0 Response to "বিসিএস রিভিউ: বাংলা ভাষা ২০তম থেকে ৩০তম বিসিএস PDF সহ"

Post a comment

চাকরির প্রস্তুতি সহায়ক বই
চাকরির খবর
বিসিএস রিভিউ

View All

সাম্প্রতিক প্রশ্নোত্তর

View All