ExamBD

বাংলা ‘অ’ ধ্বনি উচ্চারণের যে কোনো ৫টি নিয়ম উদাহরণসহ লেখ।

উত্তরঃ বাংলা ‘অ’ ধ্বনি উচ্চারণের নিয়ম নিচে তুলে ধরা হলো:
১. শব্দের শুরুতে ‘অ’-এর পরে  য-ফলাযুক্ত ব্যঞ্জনবর্ণ থাকলে ‘অ’-এর
উচ্চারণ ‘ও’-কারের মতো হয়। যেমন- অত্যাচার (ওত্তাচার), অধ্যক্ষ
(ওদ্ধোকখো), অন্য (ওন্ নো) ইত্যাদি।

২. শব্দের শুরুতে ‘অ’-এর পরে যদি ই-কার বা উ-কার থাকে, তবে ‘অ’-এর উচ্চারণ ও-কারের মতো হয়। যেমন- অরুণ (ওরুন), অতি (ওতি), অদ্য (ওদ্ দো) ইত্যাদি।

৩. শব্দের শুরুতে ‘অ’-এর পর ক্ষ বা জ্ঞ থাকলে ‘অ-এর উচ্চারণ ও-এর
মতো হয়। যেমন- দক্ষ (দোক্ খো), যজ্ঞ (যোগ্ গো), লক্ষ (লোক্ খো)
লক্ষণ (লোক্ খোন) ইত্যাদি।

৪. বাংলা ভাষায় বেশ কিছু বিশেষণে অথবা বিশেষণরূপে ব্যবহৃত পদের অন্ত্য অ লুপ্ত না হয়ে ও-কারান্ত উচ্চারণ হয়ে থাকে। যেমন –শত (শতো), বড় (বড়ো), কত (কতো) ইত্যাদি।

৫. শব্দ মধ্যস্থিত ‘অ’ আদ্য ‘এ’-এর মতোই ই ,ি ঈ ী, উ  ,ু , ঊ, ূ ,ঋ,  ৃ কার এবং ক্ষ, জ্ঞ, ্য (য-ফলা) র আগে থাকলে অ-এর উচ্চারণ ও-কারের মতো হয়। যেমন- বিরতি (বিরোতি), সরণী (শরোনি), শতমূল (শতোমূল), অসভ্য (অশোবভো) ইত্যাদি।
                    (কু. বো. '১৬; চ. '১৬; ঢা. বো. '১৬)

SUBSCRIBE TO OUR NEWSLETTER

Seorang Blogger pemula yang sedang belajar

0 Response to "বাংলা ‘অ’ ধ্বনি উচ্চারণের যে কোনো ৫টি নিয়ম উদাহরণসহ লেখ। "

Post a comment

চাকরির প্রস্তুতি সহায়ক বই
চাকরির খবর
বিসিএস রিভিউ

View All

সাম্প্রতিক প্রশ্নোত্তর

View All